-->

Thursday, 4 June 2020

ইউটিউব কি ? কিভাবে শুরু করবো ইউটিউব। ইউটিউব পরিপূর্ণ্ গাইড

ইউটিউব বিস্তারিত

হ্যালো বন্ধুরা টেক শামিম বিডিতে আপনাদের সববাইকে স্বাগতম। কেমন আছেন আশা করি ভালো আছেন। আপনি নিশ্চই ইউটিউব নিয়ে একটু সিরিয়াস হতে চাচ্ছেন। তা ছাড়া তো আপনি ইউটিউব লিখে কখনোই গুগলে সার্চ করতে না। তো ভালো হয়েছে সার্চ করে আর এই পোষ্টটি আপনার কাছে এসে। আমি মনে করি এই পোস্টটি যদি আপনি প্রথম থেকে মনোযোগ দিয়ে রিড করেন তাহলে ইউটিউব নিয়ে আপনার মনে আর কোন প্রশ্ন থাকবে না আশা করছি। কেননা আজকের এই পোষ্টটি হতে চলেছে পৃথিবীর সবচাইতে বড় ইউটিউব গাইডলাইন। ইউটিউব এর সমস্ত টপিক নিয়ে আজকে আলোচনা করবো। তো চলুন স্টার্ট করি। 

ইউটিউব কি ?
ইউটিউব কি ?


ইউটিউব কি ?

একদম প্রথম থেকে শুরু করবো। ইউটিউব হচ্ছে পৃথিবীর সবচাইতে বড় ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট।এবং বলতে পারেন  ইন্টারনেট জগতের একটি অত্যন্ত পপুলার একটি ভিডিও শেয়ারিং সাইট।মুলত এই সাইটটির জন্য আজ বিশ্ববাসী ভিডিও আদান প্রদান করতে পারে । ফেব্রুয়ারি ২০০৫ সালে প্রতিষ্ঠিত এই ইউটিউব প্রতিষ্ঠান এর পিছনে ছিলেন মূলত পেপ্যাল প্রতিষ্ঠানের তিন প্রাক্তন চাকুরীজীবি, চ্যড হারলি, স্টিভ চ্যন আর বাংলাদেশী বংশদ্ভুত জাওয়েদ করিম। বাংলাদেশের জন্য ছিলো এটা গর্বের বিষয় যে, বাংলাদেশের নাগরিকের নাম ছিল ইউটিউব তৈরির খাতায়। 

ইউটিউব কেন ? 4টি কারণ।
কেন ব্যবহার করবেন ইউটিউব ? আপনার মনের প্রশ্ন এটা। কয়েকভাবে এই প্রশ্নের উত্তর দেই। 
একটি ছেলের নাম শামিম সে খুবি ভালো গান করতে পারে তার এলাকর লোকজন তাকে খুব ভালোবাসে এবং তার গান পছন্দ করে কিন্তু শামিম ভাবে সে সারা বিশ্বের কাছে তার নাম ফুটিয়ে তুলবে। কিন্তু কিভাবে ? তাই সে তার গাওয়া গান ইউটিউবে আপলোড করে এবং সারা বিশ্বের কাছে তার নাম হয়ে যায় একজন ভালো গানের শিল্পি হিসেবে।একইভাবে আপনার যদি কোন প্রতিভা থাকে এবং আপনি সেই প্রতিভাটাকে কাজে লাগিয়ে আপনার সুনাম বা ক্ষ্যতি অর্জন করতে পারেন। যারা তাদের সুনাম ও পরিচিতি লাভ করতে চায় তারা ব্যবহার করবে ইউটিউব।

বিজনেস
আপনি ইউটিউব প্রাটফর্ম ব্যবহার করে আপনার বিজনেসটাকে ন্ক্সে লেভেলে নিয়ে যেতে পারবেন। এবার বলি কিভাবে। যারা অনলাইন পোডাক্ট নিয়ে কজ করেন বা ই-কমার্স সাইট আছে তারা চাইলে এটা ইউস করে আপনার বিজনেসে ভালো প্রফিট আয় করে নিতে পারেন।
মনে করুন আপনি স্মার্টফোন বিক্রি করেন কিন্তু কাস্টমার খুবি কম। আপনি চাইলে ইউটিউবে আপনার সেই স্মার্টফোনের বিজ্ঞাপন বা রিভিউ ভিডিও তৈরি করে আপনার সেল বা কাস্টমার বাড়াতে পারেন। 

ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম।
ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম বা ক্যারিয়ার গড়া। আপনি চাইলে ইউটিউব এ ভিডিও আপলোড করে সেখান থেকে আয় করে হ্যানসাম একটি ক্যারিয়ার তৈরি করে নিতে পারেন। বাংলাদেশে ও ইন্ডিয়াতে বেকারত্বের সংখ্যা একটু বেশি দেখা যায় যে, অনেক ইয়ার ছেলে বা মেয়েরা লেখাপড়া শেষ করে অনেক বড় বড় ডিগ্রি নিয়ে বসে আছে চাকুরির আশায় কিন্তু সবাই চাকুরি পাচ্ছে না। তাই তারা চাইলে ইউটিউবে তাদের ক্যারিয়ার গড়ে তাদের পরিবারকে চালাতে পারেন। কিভাবে কি করতে হবে একটু নিচে বলছি। 

নিজস্ব মতামত
আপনি চাইলে ইউটিউব ব্যবহার করে আপনার ক্যারিয়ার গড়ে নিতে পারবেন। ইন্ডিয়ার সোহেল ভাবে সে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখবে কিন্তু তার কাছে কোন টাকা পয়সা নেই কোন কোর্স করবার জন্য তবুও সে শিখতে চায়। তার কাছে আছে একটি ভালো কম্পিউটার বা স্মার্টফোন আর ইন্টারনেট কানেশন। সে অনেক ঘাটাঘাটি করে ইউটিউ সম্পর্কে জানতে পারে যে, সেখানে নাকি সকল কিছুই শেখা যায় তাউ আবার ফ্রিতে। সে সেখান থেকে স্বপ্নের কাজ গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে মাসে অনেক টাকা ইনকাম করে তাউ আবার বাড়িতে বসেই।শুধুমাত্র ইউটিউবে সবাইকে গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজ শেখানোর মাধ্যমে।  তো আপনিও চাইলে ইউটিউবটাকে ব্যবহার করে যে, কোন স্কিল ডিভলোপমেন্ট করে নিতে পারেন। বা কাজ শিখে নিতে পারেন।  এছাড়া আপনি আরো অনেক কিছুই করতে পারবেন। ইউটিউব ব্যবহার করে। 

ইউটিউব কি এবং কেন ব্যবহার করবেন সেটা তো অবশ্যই জেনে গেছেন। এবার আমি জানি আপনারা অবশ্যই মনে মনে ভাবছেন যে, এবার যদি ইনকামের পুরো প্রসেসটা আমাদের সাথে শেয়ার করতেন তাহলে ভালো হতো টেনশন করবেন না এবার আমরা সেই বিষয়টি নিয়ে কাজ করবো যে, আমরা কিভাবে ইউটিউবে ক্যারিয়ার বা টাকা ইনকাম করতে পারি। এবং একেবারে ধাপে ধাপে আপনাদের হাতে কলমে ইউটিউব বুঝিয়ে দেওয়া হবে সেই জন্যই তো এই পোস্টের টাইটেলে ইউটিউব পরিপূর্ণ্ গাইড লেখা আছে। 

তো চলুন এবার আমরা শুরু করি কিভাবে ইউটিউবে আমরা ক্যারিয়ার গড়তে পারি।
ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম
ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম

ইউটিউব কেন টাকা দেবে আমাদের ?
মূলত আমাদের তৈরিকৃত ভিডিও উপরে তারা এ্যাড শো করার মাধ্যমে তারা আমাদের টাকা দিবে। এই সম্পর্কে আপনারা আরো ভালোভাবে বুঝতে পারবেন। আমাদের গুগল এ্যাডসেন্স পুরো গাইড সেই পোস্টটি পড়লেই। তাই অবশ্যই পড়ে নিনে। নিচে দেখুন লিংক আছে। 

তার আগে জেনে নিন যে, ইউটিউব থেকে কি কি উপায়ে টাকা ইনকাম করা যায় ?

নাম্বার 1: গুগল এ্যাডসেন্স
এটা ‍মুলত গুগলের সাথে কাজ করা আমাদের আরেকটি পোস্ট আছে গুগল এ্যাডসেন্স পুরো গাইড চাইলে পড়তে পারেন। এই পোস্টটাই মুলত কেন ইউটিউব টাকা দিবে সেটা। 
নাম্বার: 2 বিজ্ঞাপন ।
নাম্বার: 3 এফিলিয়েট   এই  পোস্টটি পড়েন জানতে পারবেন। এফিলিয়েট কি ? 
নাম্বার: 4 স্পনসরশিপ। 
নাম্বার : 5 নিজের পন্য বিক্রি করে। 

ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার আগে আপনাদের অবশ্যই ইউটিউবের নিয়মনিধি জানতে হবে। এবার আপনাদের ইউটিউব নিয়ম নিধি সম্পর্কে জানাই। 
ইউটিউবে অর্থ উপার্জন করার আগে আপনাদের জানতে হবে। যে, 

ইউটিউব কপিরাইট কি ?
মূলত অল্প কথায় কিছু কথা বলি। কপিরাইট হচ্ছে অন্যের জিনিস ইউস করা আপনাকে অবশ্যই অন্য কারো অডিও, ভিডিও, ইমেজ, লেখা, ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকবেন মুলত অন্য কারো জিনিস নিজের বলে চালানো সেগুলোই কপিরাইট বলে। সব কথার এক কথা আপনি যা করবেন আপনাকে নিজে তৈরি করতে হবে। টেনশন করবেন না। আমরা কপিরাইটটাকে সহজ করবার জন্য আপনাদের কপিরাই ফ্রি মিউজিক, কপিরাইট ফ্রি, ভিডিও, কপিরাইট ফ্রি, অডিও, মানে কপিরাইট ফ্রি সকল জিনিস কোথা থেকে পাবেন ফ্রিতে সেটা বলে দিবো ভিডিও তৈরির পর্বে আপনি জাস্ট পড়তে থাকুন। তাহলেই সহজ ভাবে বুঝতে পারবেন। 

youtube official trams 

ইউটিউব থেকে টাকা ইনকামের জন্য ইউটিউব যে, শর্ত দেয়। 
ইউটিউব থেকে অর্থ উপার্জন করেতে হলে ইউটিউবের শর্ত মেনে কাজ করতে হবে। ইউটিউবের শর্ত হলো আপনার চ্যানেলে 4 হাজার ঘন্টার ওয়াচটাইম ভিউ হতে হবে।মানে আপনার আপলোডকৃত  ভিডিও সবাইকে 4 হাজার ঘন্টা দেখতে হবে। আর 1 হাজার সাবস্কাইব লাগবে। এছাড়া কপিরাই নিয়ম লঙ্ঘন করা যাবে না। সবকিছু পুরণ হলে
তাহলেই গুগল এ্যাডসেন্স মনিটাইজেন দ্বারা ইনকাম শুরু হবে। 

কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করবেন ? 


এটা যেহুতু দেখানো বিষয় তাই আমি আপনাদের দেখাতে পারছিনা। তাই আপনারা একটু কষ্ট করে ইউটিউবে গিয়ে সার্চ করে দেখ নিন। যে, কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলতে হয়। এটা লিখে সার্চ দিলে হাজার হাজার ভিডিও আসবে ইংরেজি অথবা বাংলা। সেটা দেখে নিন। আমি চাইলে পোস্টের মাধ্যমেই বোঝাতে পারতাম কিন্তু আপনাদের বুঝতে সমস্যা হতো তাই দেখালাম না।  তাউ আপনাদের জন্য এই পোস্টটা দিলাম চাইলে পড়তে পারেন। 

ইউটিউব চ্যানেলের জন্য কিভাবে ভিডিও বানাবো ? 
আপনি যদি চান টপ লেভেলের ইউটিউবার মানে মায়াজান বা অদ্ভুদ 10 এরা মতো ভিডিও বানাতে তাহলে এখানে ক্লিক করে পোস্টটি পড়ে নিন।

কিভাবে আপনারা ইউটিউব ভিডিওর জন্য কপিরাইট ফ্রি ফুটেজ অডিও , ভিডিও, ইমেজ , সকল কিছু পাবেন সেটা জানতে অবশ্যই আমাদের মায়াজাল ও তাজা নিউজ কিভাবে ভিডিও বানায় সেটা একবার পড়ে নিন বুঝতে পারবেন।

কিভাবে ইউটিউবে ভিডিও ভাইরাল করবেন অল্প সময়ে ? 

কমন প্রশ্নের উত্তর দেই ।
ভাই আমরা কি মোবাইল দিয়ে ইউটিউব স্টার্ট করতে পারবো ?
হ্যা আপনি অবশ্যই মোবাইল দিয়ে ভিডিও ইউটিউবিং করতে পারবেন।

পড়া ভালো
কিভাবে ইউটিউবে সফল হবেন। পড়ুন 

কিভাবে মোবাইল বা কম্পিউটার দিয়ে কার্টন ভিডিও বানাবেন ? 

ইউটিউব শুরু করার জন্য বেস্ট
একটি মাইক্রোফোন ভয়েস রেকর্ড করার জন্য 

এই ছিলো আজকের পোস্ট এর পরে আরো এই বিষয় নিয়ে পোস্ট আসবে তো সবাই পড়ার জন্য বা জানার জন্য ভিসিট করতে থাকুন টেক শামিম বিডি techsamimbd
আশা করছি আপনাদের ভালো লেগেছে আমাদের ইউটিউব গাইড এই পোস্টটি হ্যা আমাদের উচিৎ ছিলো আরো বেশি ইনফোরমেশন দেওয়া কিন্তু আমরা দিতে পারি নাই এর জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখিত্  আমরা চেস্টা করবো এর 2য় পর্ব আনার জন্য আপনারা কমেন্ট করুন যে, এর পরে কোন টপিক নিয়ে আলোচনা করবো তো  সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন ধন্যবাদ সবাইকে। 

Advertiser